গাংনীর বামন্দীতে এবার বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে দুঃসাহসিক চুরি

আইন ও আদালত, ছবি

এম চোখ ডট কম, গাংনী:
মেহেরপুরের গাংনীর বামন্দী পুলিশ ক্যাম্পের অদূরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক সুহু বাঙ্গালীর বাড়িতে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটেছে। চোরেরা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে। এর আগে ৭ জুন বামন্দী বাজারের এক চশমা ব্যবসায়ীর বাড়িতে একইভাবে চুরি সংঘঠিত হয়। পর পর দু’টি চুরির ঘটনায় এলাকায় চুরি আতংক বিরাজ করছে।
নুহু বাঙ্গালী জানান, তিনি তার ক্লিনিকে ও মিসেস হুদা তার কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত ছিলেন। সবার অনুপস্থিতিতে চোরেরা মুল ফটকের তালা ভেঙ্গে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। শয়ন কক্ষের আলমারির তালা ভেঙ্গে নগদ টাকা ও একটি এনড্রয়েড মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়।
এদিকে গেল ৭ জুন বামন্দী বাজারের চেরাগীপাড়ায় ভাড়া বাসায় বসবাসকারী চশমা ব্যবসায়ী গোলাম সরওয়ারের বাড়িতে দিনেদুপরে একইভাবে চুরি হয়। চোরেরা নগদ এক লক্ষ ২০ টাকা টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যায়।
ভুক্তভোগী সুত্রে জানা গেছে, পরিবারের লোকজন দুপুরে বাড়ির বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেয় চোর।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সাম্প্রতিক সময়ে বামন্দী এলাকায় অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অনেকে। বিশেষ করে প্রকাশ্য দিবালোকে চুরির ঘটনায় এলাকার মানুষ আতংকিত। এছাড়াও চিহ্নিত কিছু ব্যক্তি বামন্দী বাজারে সেই আগের মতই অবস্থান করছে। যাদের দেখে ভয়ে মুখ খোলে না তেমন কেউ। তাই চুরির বিষয়েও তেমন কেউ মুখ খুলতে চাচ্ছে না। চোর শনাক্ত ও গ্রেফতার না হলে আরও বড় ধরনের অপরাধ কর্মকাণ্ড ঘটনার আশংকা প্রকাশ করেছেন অনেকে।
নুরুল হুদার বাড়িতে চুরির ঘটনার বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, চুরির ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। ক্যাম্প পুলিশের মাধ্যমে খবর নিয়ে চোর শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।