সুন্দরী নারী দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ।। গাংনীর বামন্দি থেকে কয়েকজন গ্রেপ্তার

আইন ও আদালত, ছবি, বিশেষ

এম চোখ, ডট কম, গাংনী :
সুন্দরী নারী দিয়ে মোবাইল ফোনে ফাঁদ পেতে পুরুষদের স্বর্বশান্ত করছে একটি প্রতারক চক্র। 

সাম্প্রতিক সময়ে এ প্রতারক চক্রটি বেশ কয়েকজন যুবককে ডেকে এনে ওই নারীর সাথে ভিডিও করে টাকা পয়সা ছিনতাইসহ অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে আদায় করেছে মোটা অংকের মুক্তিপণ। স্থানীয় বিভিন্ন মাধ্যম ও পুলিশের কাছ থেকে মিলেছে এই তথ্য।
রোববার (২৩ মে) বিকেলে গাংনী উপজেলার বামন্দি থেকে এক সুন্দরী নারীসহ অভিযুক্ত প্রতারণা চক্রের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর পরেই বেরিয়ে এসেছে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য। আর সামনে এসেছে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা প্রতারণার ফাঁদ এবং প্রতারক চক্রের সদস্যদের নাম।  ‌
জানা গেছে, বহুল পরিচিত এক সুন্দরী নারীর সাথে মেহেরপুরের এক ব্যক্তির মোবাইলে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে ওই নারী। প্রেমের অভিনয় করে তাকে বামন্দি বাজারে দেখা করার নামে রোববার সকালে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় আগে থেকেই ওত পেতে থাকা ওই নারীর সহযোগীরা তাকে কৌশলে’ আটক করে। বামন্দী বাজারে দীর্ঘক্ষণ আটকে রেখে মারধর ও নারীর সাথে তার ভিডিও ধারণ করে কয়েকজন। ভিডিওটি গোপন রাখা ও মুক্তিপণ হিসেবে ৫ লাখ টাকা দাবি করা হয় ওই ব্যক্তির কাছে। এক পর্যায়ে বিষয়টি নজরে আসে পুলিশের। ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত প্রতারক চক্রের তিনজন ও ওই নারী এবং তার প্রেমের ফাঁদে পড়া ব্যক্তিকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয় পুলিশ।
গাংনী থানা সূত্রে জানা গেছে, উদ্ধার হওয়া নারীর নামে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে দুটি থানায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। সে আটক হওয়ার পর এই বিষয়টি সামনে আসে পুলিশের। আটকদের থানায় এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ এবং প্রতারক চক্রের বিষয়টি নিশ্চিত হয় পুলিশ।

গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান,  ওই নারীর বিরুদ্ধে অনৈতিক এবং সামাজিক অবক্ষয় সৃষ্টির অভিযোগে দুটি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে। এছাড়াও প্রতারণার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে অনেক তথ্য পেয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের পরেই পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।