আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ, ডব্লিউএইচও

ছবি, বিশেষ, স্বাস্থ্য

এম চোখ ডট কম, ডেস্ক:

বিশ্ব এখন করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস।

বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, ডব্লিউএইচওর মহাসচিব গতকাল বুধবার বিশ্বকে করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে এই সতর্কতা দেন। বিশ্বে করোনার ডেলটা ধরন থেকে সংক্রমণ বাড়ছে।

এমন প্রেক্ষাপটে জাতিসংঘের স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধানের কাছ থেকে করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সতর্কবাণী এল। তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেন, ‘দুর্ভাগ্যক্রমে… আমরা এখন তৃতীয় ঢেউয়ের প্রাথমিক পর্যায়ে আছি।’

ডব্লিউএইচওর মহাসচিবের কথায়, করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় বাড়ার পেছনে মুখ্য কারণ হিসেবে কাজ করছে — ভারত থেকে ছড়িয়ে পড়া ডেলটা ধরনের বিস্তার। সামাজিক গতিশীলতা বৃদ্ধি ও জনস্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রমাণিত ব্যবস্থাগুলোর সামঞ্জস্যহীন ব্যবহারও অন্যতম কারণ।

গেব্রেয়াসুস বলেন, একটা সময় বিশ্বে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু ধারাবাহিকভাবে কমছিল। কিন্তু সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে, সারা বিশ্বেই করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু নতুন করে বাড়ছে। করোনাভাইরাসের বিবর্তন বা রূপ বদল অব্যাহত আছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ডব্লিউএইচওর মহাসচিব বলেন, করোনার অধিক সংক্রামক ডেলটা ধরনটি বর্তমানে বিশ্বের ১১১টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

টিকা সরবরাহ-বণ্টনের বৈশ্বিক বৈষম্য নিয়ে কথা বলেন ডব্লিউএইচওর প্রধান। এই বৈষম্যকে বেদনাদায়ক হিসেবে অভিহিত করেন তিনি। ডব্লিউএইচওর প্রধান বলেন, বিশ্বের অনেক দেশ এখন পর্যন্ত কোনো টিকাই পায়নি। আর যেসব দেশ টিকা পেয়েছে, তাদের অধিকাংশ যথেষ্টসংখ্যক পায়নি।

তবে শুধু টিকা দিয়ে এই মহামারিকে থামানো যাবে না বলেও উল্লেখ করেন তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস। এ জন্য তিনি করোনা নিয়ন্ত্রণের উপযুক্ত ও সামঞ্জস্যপূর্ণ কৌশলগুলো অনুসরণ করে যেতে দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

গত এক সপ্তাহে সারা বিশ্বে প্রায় ৩০ লাখ মানুষের নতুন করে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন ৫৫ হাজারের বেশি মানুষ। এমনটাই জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহামারিসংক্রান্ত সাপ্তাহিক বুলেটিন।