গাংনী ভোমরদহে শতাধিক পরিবার পানিবন্দী

ছবি, বিশেষ

এম চোখ ডট কম, গাংনী:
অপরিকল্পিত বাড়িঘর ও রাস্তা নির্মানে মেহেরপুর গাংনী উপজেলার ভোমরদহ গ্রামে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। গেল কয়েকদিনের বৃষ্টিতে যার বিরুপ প্রভাব পড়েছে। জলাবদ্ধতায় শতাধিক বাড়িঘরের মানুষ দুর্বিসহ জীবন-যাপন করছেন। দ্রুত প্রতিকারের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন ভুক্তভোগীরা।
মাত্র ৫০০ মিটার ড্রেনেজ ব্যবস্থা হলেই সব সমস্যার সমাধান হবে বলে জানান এলাকাবাসী।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গেল দুই দিন ধরে মাঝারি বর্ষণ হচ্ছে। এতে ভোমরদহ গ্রামের প্রধান সড়কের পাশের নীচু স্থানে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। বাড়িঘরের চেয়ে রাস্তার অবস্থান উঁচু। রাস্তার পাশ থেকে বাড়িঘরের অবস্থান সমতল। এই সমতল জায়গার পানি জমে আছে। রাস্তার পাশের বাড়িগুলোর লোকজন আধ হাটু পানির মধ্য দিয়ে চলাচল করছেন।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, প্রতি বছরই নির্মান হচ্ছে নতুন নতুন বাড়ি। সেক্ষেত্রে বসতি এলাকার আকৃতি পরিবর্তন হচ্ছে। অন্যদিকে রাস্তা পাকা রাস্তা নির্মানের সময় পানি নিষ্কাসনের ব্যবসা রাখা হয়নি। জমে থাকা পানি নিষ্কাসন করতে হলে রাস্তা কেটে কালভার্ট করতে হবে। অন্যথায় ড্রেনেজ নির্মান করে মাঠের সাথে পানি বের হওয়ার সংযোগ স্থাপন করার কোন বিকল্প নেই।
গ্রামের ভুক্তভোগী কয়েকজন বলেন, বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন হতো গ্রামের পূর্বপাড়া মাঠে। জন্মের পর থেকেই তারা এটি দেখে আসছেন। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা গুলো চোখের সামনেই হারিয়ে যেতে থাকে। গ্রামের মানুষ অপরিকল্পিতভাবে পুকুর খনন ও নিজ নিজ বাড়ীতে মাটি ভরাটের মাধ্যমে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। তাই বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।
এলাকার বাসিন্দা তৌফিক আলামিন জানান, উন্নয়নের বাংলাদেশেও সামান্য বর্ষাতেও যদি জলাবদ্ধতার কারণে জনজীবন বিঘ্নিত হয় তাহলে জনজীবনের সবা স্বাচ্ছন্দ্য ম্লান হয়ে যায়। মাত্র ৫০০ মিটার ড্রেনেজ ব্যবস্থা করা গেলেই এ সমস্যা থেকে সমাধান মিলতো।